EID2

বাংলাবান্ধা-ফুলবাড়ি সীমান্তে আমদানি-রপ্তানিতে সতর্কতা অবলম্বনে ভারতকে চিঠি

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:
বিশ্বব্যাপী ভয়াবহ আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর বর্তমান “ইন্ডিয়ান ভ্যারিয়েন্টা” এর প্রাদুর্ভাব ভারতে ব্যাপক আকার ধারণ করায় বাংলাদেশের একমাত্র চতুর্দেশীয় স্থলবন্দর বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে বাংলাবান্ধা-ফুলবাড়ি সীমান্তে সতর্কতা অবলম্বনে ভারতীয় ফুলবাড়ী এক্সপোর্টার্স এন্ড ইমপোর্টার্স ওয়েলফেয়ার এসোসিয়শনকে এক চিঠি প্রদান করা হয়েছে।

শনিবার (১ মে) সন্ধায় পঞ্চগড় আমদানি-রপ্তানিকারক এসোসিয়েশনের সভাপতি মেহেদী হাসান খান বাবলা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, বাংলাদেশ সরকার সতর্কতার সাথে ভারতের সাথে লোক চলাচল সাময়িকভাব বন্ধ রাখলেও ব্যবসা-বাণিজ্য চালু রাখতে স্থলবন্দর সমূহে অধিকতর নিরাপত্তা ও সতর্কতা অবলম্বনে সকলকে নির্দেশ দিয়েছে। আমরা আমদানি-রপ্তানিকারক, সিএন্ডএফ এজেন্টসহক্ষন্দর সংশ্লিষ্ট সকলেই সাধ্যমত স্বাস্থ্যবিধি মানতে বদ্ধপরিকর রয়েছি। আমাদের জনপ্রতিনিধিবৃন্দ, সরকারি প্রশাসন এক্ষেত্রে সতর্ক থেকে তৎপর রয়েছেন। এবং আমাদের নানারকম সহযোগীতা করছে। এতবিষয়ে সরকারিভাবে বন্দর পরিচালনায় একটি SOP প্রণয়ন করা হয়েছে, যা সকলকে কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।

সভাপতি মেহেদী হাসান খান বাবলা আরো বলেন, “ইন্ডিয়ান ভ্যারিয়েন্টা” এর প্রাদুর্ভাব ভারতে ব্যাপক আকার ধারণ করায় ভারতীয় পণ্যবাহী গাড়ীসমূহকে ডিজ ইনফেকশন করা, গহাড়ী চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বিশেষ নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। যদি তারা এই নির্দেশনা না মানে তবে অবস্থার উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বন্ধ রাখা ছাড়া আর কোন গত্যন্তর থাকবেনা। তাই আমরা করোনা মহামারী প্রতিরোধে আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সতর্ক থেকে বৈশ্বিক শান্তি প্রতিষ্ঠায় সকলকে সচেষ্টা থাকতে অনুরোধ করছি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.