পাবনায় মসজিদে ছাত্রীর সঙ্গে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ইমাম আটক!

পাবনা প্রতিনিধি:
পাবনার বেড়া উপজেলায় মসজিদের ভেতর ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় হুসাইন আহমেদ সিরাজী (৪০) নামের মসজিদের ইমাম ও মহিলা হাফিজিয়া মাদ্রাসার এক শিক্ষককে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন এলাকাবাসী। মঙ্গলবার (১১ মে ২০২১) রাত আড়াইটার দিকে বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানাধীন বক্তারপুর গ্রামের নতুনপাড়া জামে মসজিদের ভেতরে ঘটনাটি ঘটে।

জানা গেছে, অভিযুক্ত ইমামের বাড়ি টাংগাইল জেলার ভূঁয়াপুর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামে। তিনি বিবাহিত ও দুই সন্তানের জনক। গত প্রায় ৬-৭ বছর ধরে ওই মসজিদে ইমামতির পাশাপাশি মসজিদ সংলগ্ন মনোয়ারা বেগম মহিলা হাফিজিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করছেন। ওই কিশোরী একই গ্রামের আলম সেখের মেয়ে। ওই মাদ্রাসায় মেয়েটি লেখাপড়া করতো।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার দিন রাত আড়াইটার দিকে মসজিদ সংলগ্ন বাড়ির আশরাফুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি সেহরী খাওয়ার জন্য উঠে মসজিদের ভেতর থেকে শব্দ শুনে সন্দেহ হলে মসজিদের দিকে এগিয়ে গিয়ে জানালার ফাঁক দিয়ে ইমামকে ওই এলাকার ১৫ বছর বয়ষী এক কিশোরীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান।

এসময় তার চেঁচামেচিতে কিছুক্ষণের মধ্যে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে মসজিদের বাইরে তালা দিয়ে আমিনপুর থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ভোর ৩ টার দিকে ওই ইমামকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এসময় কয়েকশ’ মানুষ মসজিদের সামনে ভিড় জমান বলে জানা যায়।

ইমাম হুসাইন আহমেদ সিরাজী জানান, ওই কিশোরী তার ছাত্রী। তারা কোনো খারাপ কাজ করেননি।

আমিনপুর থানার ওসি তদন্ত সবুজ রানা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ইমামকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ওই মেয়েটির বাবা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.