EID2

অনির্দিষ্টকালের আইপিএল স্থগিত

করোনাভাইরাসের প্রকোপে অবশেষে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ঘোষণা করা হলো ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ-আইপিএল। সোমবার কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর মধ্যকার ম্যাচটি স্থগিত হওয়ার পর গুঞ্জন চাউড় হয় আইপিএলের স্থগিত হওয়ার ব্যাপারে। হঠাৎ করে আইপিএল’র জৈব সুরক্ষা বলয় ভেদ করে হানা দেয় করোনাভাইরাস। আর এরপরেই আইপিএল স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড-বিসিসিআই।

কঠোর জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করেই মাসখানেক ধরে চলছিল ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। কোনো বিরতি বা বাধা ছাড়াই অনুষ্ঠিত হয়েছে ২৮টি ম্যাচ। তবে টুর্নামেন্টের মাঝপথে এসে আক্রান্ত শুরু হতে শুরু করেছেন ক্রিকেটার ও স্টাফরা। এমন পরিস্থিতিতে টুর্নামেন্ট চালু রাখতে হিমশিম খাচ্ছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ। ফলে অনির্দিষ্টকালের জন্য আইপিএল স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)। এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

কলকাতা নাইট রাইডার্সের দুই ক্রিকেটার ভরুন চক্রবর্তী এবং সন্দীপ ওয়ারিয়ার করোনা পজিটিভ হলে ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষের ম্যাচটি স্থগিত ঘোষণা করা হয়। এরপর মঙ্গলবার অমিত মিশরা এবং ঋদ্ধিমান সাহা পজিটিভ হন। এরপরেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজিদের সঙ্গে আলোচনা করে অনির্দিষ্টকালের জন্য আইপিএল স্থগিত ঘোষণা করা হয়।

বিসিসিআই’র এক কর্মকর্তা বলেন, ‘দীর্ঘ আলোচনার পর আমরা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি যে আপাতত আইপিএল স্থগিত রাখা হবে।’

এদিকে সোমবার চেন্নাই সুপার কিংসের ক্রিকেটার লাক্ষ্মিপতি বালাজি এবং বাস কর্মকর্তা করোনা পজিটিভ আসে। এমন পরিস্থিতিতে আইপিএল চালিয়ে যাওয়ার মতো দৃষ্টতা দেখায়নি বিসিসিআই। এরপরেই বুধবারে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া চেন্নাই সুপার কিংস-রাজস্থান রয়্যালসের মধ্যকার ম্যাচটি স্থগিত করে আইপিএল কর্তৃপক্ষ। এদিকে মঙ্গলবার রাত আটটায় মাঠে নামার কথা ছিল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও সানরাইরাজার্স হায়দরাবাদের।

এর আগে ভারতের করোনাভাইরাসের প্রকোপের দিক লক্ষ্য রেখে ইতোমধ্যেই অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডাম জাম্পা, কেন রিচার্ডসন্সহ আরও কিছু খেলোয়াড় আইপিএল ছেড়ে নিজ দেশে পাড়ি জমিয়েছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.